ঢাকা ১০:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবিসি ন্যাশনাল নিউজ২৪ ইপেপার

ব্রেকিং নিউজঃ

🔤 দৌলতপুরে স্বামীর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা‼️ 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৩৬:১৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ অক্টোবর ২০২২ ৪৪ বার পড়া হয়েছে

রিপোর্টারঃ সাইদুর রহমান দৌলতপুর,কুষ্টিয়া।

🟥 স্বামীর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা

থানায় অভিযোগ দায়ের ‼️

কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার আদাবাড়িয়া ইউনিয়নে যৌতুকের দাবিতে এক লম্পট স্বামী তার স্ত্রীকে যৌতুকের দাবিতে অমানবিক অত্যাচার করলে সহ্য করতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় স্ত্রী পরিবার নিজে বাদী হয়ে থানায় মামলার জন্য স্বামী ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার প্রাগপুর ইউপির জামাল পুর গ্রামের দিনমজুর হাফিজুল ইসলাম এর মেয়ে কনা খাতুনের সাথে পার্শ্ববর্তী আদাবাড়িয়া ইউপির ধর্মদহ ঘাট পাড়া গ্রামের আজিজুল হকের সন্তান পলাশের সাথে আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে গত ১০ বছর আগে বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ের পর তাদের মধ্যে এক কন্যা সন্তান জন্ম হয়। নাম তার পলি খাতুন( ৯)।

তাদের সংসার কিছু দিন ভালো যেতে না যেতেই চতুর জামাই পলাশ শশুর হাফিজুলের নিকট থেকে বিভিন্ন ভাবে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা হাতে নেই।

 

যৌতুকলোভী স্বামী পলাশ ও তার পরিবার সুকৌশলে স্ত্রী কনা কে তার পিতার নিকট থেকে আরো এক লাখ টাকা দাবি করলে স্ত্রী কনা গরিব পিতা দিতে পারবে না বলে অস্বীকার করলে গত ৪/১০/২২ ইং তারিখে স্বামী পলাশ (২৮) আসিক (২২) নাহিদ (১৮) সহ মা মোমেনা খাতুন (৫২) সন্ধ্যাই স্ত্রী কনা কে লোহার রোড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। তোকে তালাক দেব দেখি তোর লোকজন আমার কি করতে পারে। পরে কনা অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে রাগে ক্ষোভে গত ৫/১০/২২ ইং তারিখে বিষ পানে আত্ম হত্যা করার চেষ্টা করলে লোক জন ছুটে এসে তাকে দ্রুত দৌলতপুর হাসপাতালে নিয়ে এসে ভর্তি করলে কর্তব্য রত ডাক্তার আনেক চেষ্টা করে বিষ তুলে তাকে সুস্থ্য করে তোলে। পরে গত ৭/১০/২২ ইং তারিখে কনার পিতা হাফিজুল জীবিকার তাগিদে ঢাকার নারায়নগঞ্জের অবস্থান করায় নানা মারফত আলী নিজে বাদী হয়ে দৌলতপুর থানায় পলাশ সহ তার বিরুদ্ধে মামলার জন্য লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

🔤 দৌলতপুরে স্বামীর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা‼️ 

আপডেট সময় : ১১:৩৬:১৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ অক্টোবর ২০২২

রিপোর্টারঃ সাইদুর রহমান দৌলতপুর,কুষ্টিয়া।

🟥 স্বামীর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা

থানায় অভিযোগ দায়ের ‼️

কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার আদাবাড়িয়া ইউনিয়নে যৌতুকের দাবিতে এক লম্পট স্বামী তার স্ত্রীকে যৌতুকের দাবিতে অমানবিক অত্যাচার করলে সহ্য করতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় স্ত্রী পরিবার নিজে বাদী হয়ে থানায় মামলার জন্য স্বামী ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার প্রাগপুর ইউপির জামাল পুর গ্রামের দিনমজুর হাফিজুল ইসলাম এর মেয়ে কনা খাতুনের সাথে পার্শ্ববর্তী আদাবাড়িয়া ইউপির ধর্মদহ ঘাট পাড়া গ্রামের আজিজুল হকের সন্তান পলাশের সাথে আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে গত ১০ বছর আগে বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ের পর তাদের মধ্যে এক কন্যা সন্তান জন্ম হয়। নাম তার পলি খাতুন( ৯)।

তাদের সংসার কিছু দিন ভালো যেতে না যেতেই চতুর জামাই পলাশ শশুর হাফিজুলের নিকট থেকে বিভিন্ন ভাবে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা হাতে নেই।

 

যৌতুকলোভী স্বামী পলাশ ও তার পরিবার সুকৌশলে স্ত্রী কনা কে তার পিতার নিকট থেকে আরো এক লাখ টাকা দাবি করলে স্ত্রী কনা গরিব পিতা দিতে পারবে না বলে অস্বীকার করলে গত ৪/১০/২২ ইং তারিখে স্বামী পলাশ (২৮) আসিক (২২) নাহিদ (১৮) সহ মা মোমেনা খাতুন (৫২) সন্ধ্যাই স্ত্রী কনা কে লোহার রোড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। তোকে তালাক দেব দেখি তোর লোকজন আমার কি করতে পারে। পরে কনা অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে রাগে ক্ষোভে গত ৫/১০/২২ ইং তারিখে বিষ পানে আত্ম হত্যা করার চেষ্টা করলে লোক জন ছুটে এসে তাকে দ্রুত দৌলতপুর হাসপাতালে নিয়ে এসে ভর্তি করলে কর্তব্য রত ডাক্তার আনেক চেষ্টা করে বিষ তুলে তাকে সুস্থ্য করে তোলে। পরে গত ৭/১০/২২ ইং তারিখে কনার পিতা হাফিজুল জীবিকার তাগিদে ঢাকার নারায়নগঞ্জের অবস্থান করায় নানা মারফত আলী নিজে বাদী হয়ে দৌলতপুর থানায় পলাশ সহ তার বিরুদ্ধে মামলার জন্য লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

শেয়ার করুন