ঢাকা ০৭:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবিসি ন্যাশনাল নিউজ২৪ ইপেপার

ব্রেকিং নিউজঃ
ঠাকুরগাঁওয় পৌরসভার সড়কের বেহাল দশা, অল্প বৃষ্টিতে তলিয়ে যায় পুরো এলাকা বগুড়ার জোড়া খুনের প্রধান আসামী গ্রেফতার বালিয়াডাঙ্গীতে এইচএসসি ২০০২ ব্যাচের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত দিনাজপুরে শ্যামলী পরিবহনের ধাঁক্কায় এ্যাম্বুলেন্স চালকের মর্মান্তিক মৃত্যু রংপুরে তিস্তার পানি বিপৎসীমার ওপরে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত ডোমারে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালিত হলো শতবর্ষী অনুষ্ঠান লালমনিরহাটে বজ্রপাতে ৫ টি গবাদিপশু পুড়ে যায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটি (বিএমএসএস) নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি এস এম জহিরুল ইসলাম বিদ্যুত ও সাধারণ সম্পাদক মো: জসিম উদ্দিন জসিম ডোমারে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার নামাজ অনুষ্ঠিত পবিত্র ঈদুল আযহার জামাতে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে : ডিএমপি কমিশনার

২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেট: তামাকপণ্যের দাম কিছুটা বাড়বে

এবিসি ন্যাশনাল ডেস্ক নিউজ
  • আপডেট সময় : ০৮:৪৯:১৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ জুন ২০২৪ ২৩ বার পড়া হয়েছে

২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেট: তামাকপণ্যের দাম কিছুটা বাড়বে

২০২৪-২৫ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে সিগারেট ও বিড়ির মতো তামাকজাত পণ্যের দাম কিছুটা বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সংসদে আসন্ন অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সিগারেট মানব স্বাস্থ্যের জন্য সম্পূর্ণ ক্ষতিকর। তামাক ও এ জাতীয় পণ্যের ব্যবহার কমাতে এবং এ খাত থেকে রাজস্ব বাড়াতে আইনের দ্বিতীয় ধারায় উল্লিখিত তামাকজাত পণ্যের মধ্যে সিগারেটের ওপর ৬৫ শতাংশের পরিবর্তে ৬৬ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক নির্ধারণের প্রস্তাব করছি।’

প্রস্তাবিত বাজেটে সিগারেটের নিম্নস্তরের ১০ শলাকার খুচরা মূল্য ৪৫ থেকে ৫০ টাকা এবং সম্পূরক শুল্ক ২ শতাংশ (যা বর্তমানে ৫৮ শতাংশ) বাড়ানো হয়েছে।

এছাড়া মধ্যম ও উচ্চ স্তরের সিগারেটের ১০ শলাকার মূল্য যথাক্রমে ৭০ টাকা (যা বর্তমানে ৬৭ টাকা) এবং ১২০ টাকা (যা বর্তমানে ১১৩ টাকা) নির্ধারণ করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রিমিয়াম কোয়ালিটির সিগারেটের দশ শলাকার মূল্য ১৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৬০ টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

এসব স্তরে সম্পূরক শূল্ক ৬৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৬৫ দশমিক ৫ শতাংশ করার প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

এ ছাড়াও ১০ গ্রাম জর্দা ও গুলের দাম যথাক্রমে ৩ টাকা (৬.৬৭ শতাংশ) ও ২ টাকা (৮.৭ শতাংশ) বাড়ানো হলেও সম্পূরক শুল্ক অপরিবর্তিত রয়েছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘নিম্নস্তরের ১০ শলাকার সিগারেটের মূল্যস্তর ৫০ টাকা ও এর চেয়ে বেশি এবং সম্পূরক শুল্ক ৬০ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব করছি। এছাড়া মধ্যম স্তরের ১০ শলাকার সিগারেটের মূল্যস্তর ৭০ টাকা বা তার বেশি, উচ্চস্তরের ১০ শলাকার সিগারেটের মূল্যস্তর ১২০ টাকা বা তার বেশি, অতি উচ্চস্তরের ১০ শলাকার সিগারেটের মূল্যস্তর ১৬০ টাকা বা তার বেশি এবং এই তিনটি স্তরের সম্পূরক শুল্ক ৬৫ দশমিক ৫ শতাংশ নির্ধারণ করার প্রস্তাব করছি।’

সেইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘গত বছরের মতো হাতে তৈরি বিড়ির (ফিল্টার ছাড়া) ২৫ শলাকার সর্বোচ্চ মূল্য ১৮ টাকা, ১২ শলাকার সর্বোচ্চ মূল্য ৯ টাকা ও আট শলাকার সর্বোচ্চ মূল্য ৬ টাকা এবং সম্পূরক শূল্ক গত বছরের মতো ৩০ শতাংশই রাখার প্রস্তাব করছি।’

‘যন্ত্রের সাহায্য ব্যতীত হাতে তৈরি বিড়ির (ফিল্টারসহ) ২০ শলাকার সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ১৯ টাকা, ১০ শলাকার সর্বোচ্চ মূল্য ১০ টাকা এবং সম্পূরক শুল্ক ৪০ শতাংশ অব্যাহত রাখার প্রস্তাব করছি।’

শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেট: তামাকপণ্যের দাম কিছুটা বাড়বে

আপডেট সময় : ০৮:৪৯:১৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ জুন ২০২৪

২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেট: তামাকপণ্যের দাম কিছুটা বাড়বে

২০২৪-২৫ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে সিগারেট ও বিড়ির মতো তামাকজাত পণ্যের দাম কিছুটা বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সংসদে আসন্ন অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সিগারেট মানব স্বাস্থ্যের জন্য সম্পূর্ণ ক্ষতিকর। তামাক ও এ জাতীয় পণ্যের ব্যবহার কমাতে এবং এ খাত থেকে রাজস্ব বাড়াতে আইনের দ্বিতীয় ধারায় উল্লিখিত তামাকজাত পণ্যের মধ্যে সিগারেটের ওপর ৬৫ শতাংশের পরিবর্তে ৬৬ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক নির্ধারণের প্রস্তাব করছি।’

প্রস্তাবিত বাজেটে সিগারেটের নিম্নস্তরের ১০ শলাকার খুচরা মূল্য ৪৫ থেকে ৫০ টাকা এবং সম্পূরক শুল্ক ২ শতাংশ (যা বর্তমানে ৫৮ শতাংশ) বাড়ানো হয়েছে।

এছাড়া মধ্যম ও উচ্চ স্তরের সিগারেটের ১০ শলাকার মূল্য যথাক্রমে ৭০ টাকা (যা বর্তমানে ৬৭ টাকা) এবং ১২০ টাকা (যা বর্তমানে ১১৩ টাকা) নির্ধারণ করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রিমিয়াম কোয়ালিটির সিগারেটের দশ শলাকার মূল্য ১৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৬০ টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

এসব স্তরে সম্পূরক শূল্ক ৬৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৬৫ দশমিক ৫ শতাংশ করার প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

এ ছাড়াও ১০ গ্রাম জর্দা ও গুলের দাম যথাক্রমে ৩ টাকা (৬.৬৭ শতাংশ) ও ২ টাকা (৮.৭ শতাংশ) বাড়ানো হলেও সম্পূরক শুল্ক অপরিবর্তিত রয়েছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘নিম্নস্তরের ১০ শলাকার সিগারেটের মূল্যস্তর ৫০ টাকা ও এর চেয়ে বেশি এবং সম্পূরক শুল্ক ৬০ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব করছি। এছাড়া মধ্যম স্তরের ১০ শলাকার সিগারেটের মূল্যস্তর ৭০ টাকা বা তার বেশি, উচ্চস্তরের ১০ শলাকার সিগারেটের মূল্যস্তর ১২০ টাকা বা তার বেশি, অতি উচ্চস্তরের ১০ শলাকার সিগারেটের মূল্যস্তর ১৬০ টাকা বা তার বেশি এবং এই তিনটি স্তরের সম্পূরক শুল্ক ৬৫ দশমিক ৫ শতাংশ নির্ধারণ করার প্রস্তাব করছি।’

সেইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘গত বছরের মতো হাতে তৈরি বিড়ির (ফিল্টার ছাড়া) ২৫ শলাকার সর্বোচ্চ মূল্য ১৮ টাকা, ১২ শলাকার সর্বোচ্চ মূল্য ৯ টাকা ও আট শলাকার সর্বোচ্চ মূল্য ৬ টাকা এবং সম্পূরক শূল্ক গত বছরের মতো ৩০ শতাংশই রাখার প্রস্তাব করছি।’

‘যন্ত্রের সাহায্য ব্যতীত হাতে তৈরি বিড়ির (ফিল্টারসহ) ২০ শলাকার সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ১৯ টাকা, ১০ শলাকার সর্বোচ্চ মূল্য ১০ টাকা এবং সম্পূরক শুল্ক ৪০ শতাংশ অব্যাহত রাখার প্রস্তাব করছি।’

শেয়ার করুন