ঢাকা ০৩:২৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবিসি ন্যাশনাল নিউজ২৪ ইপেপার

ব্রেকিং নিউজঃ
এবার মরক্কোতে কোকাকোলা-পেপসি বয়কটের ডাক ঠাকুরগাঁও বিমানবন্দর পুন: চালু ও মেডিকেল কলেজ স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন সান্তাহার জংশন স্টেশানে যাত্রীরা ব্যবহার করে না রেলওয়ের ফুটওভারব্রিজ বটিয়াঘাটা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে গাছের চারা বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের উদ্যোগে অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্য উদ্ধার ৫ জন মাদক ব্যবসায়ী ও ২জন জুয়ারু সহ গ্রেফতার ডোমারের ০৫নং বামুনিয়া ইউনিয়নের হতদরিদ্রদের মাঝে ল্যাট্রিনের রিং ও স্লাব বিতরণ র‍্যাবের যৌথ অভিযানে হত্যা মামলার এজহারনামীয় দুই আসামী গ্রেফতার বটিয়াঘাটা নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান শিমুর সাথে বিসিবির সভাপতি শেখ সোহেল’র সৌজন্য সাক্ষাৎ নওগাঁয় চাঞ্চল্যকর হত্যাকাণ্ডে দুই যুবক আটক কুয়েতে মাঙ্গাফ এলাকায় শ্রমিক ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ৪১

সলঙ্গায় অবৈধ ভাবে মৎস্য আড়ৎ বন্ধ ও দখলকৃত জায়গা উদ্ধারে মানববন্ধন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:২৫:৫৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ৩৮ বার পড়া হয়েছে

লুৎফর রহমান লিটন,সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার সলঙ্গায় কুতুবের চড়ে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা মৎস আড়ৎ বন্ধে ও জোরপূর্বক ভাবে দখলকৃত জায়গা উদ্ধারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন করেছে জায়গার প্রকৃত মালিকগন।

২৩ শে এপ্রিল মঙ্গলবার বেলা ১০ টার দিকে কুতুবেরচর মৎস্য আড়ৎ এর সামনে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে প্রায় ৩ শতাধিক ক্ষতিগ্রস্ত মানুষসহ জমির মালিকগন।

সংবাদ সম্মেলনে প্রায় ১৫ জন জমির মালিক জানায়, মৎস্য আড়ৎ কমিটির সভাপতি আব্দুল হাই খান বিভিন্ন সময় মৎস্য আড়ৎটিকে নিজের সুবিধা আদায়ের জন্য বিভিন্ন জায়গায় স্থানান্তর করে। একসময়ের ঐতিহ্য বাহী সলঙ্গা মৎস্য আড়ৎটি হাটিকুমরুলে নিয়ে যায় আব্দুল হাই আবার সেই আব্দুল হাই ই সিরাজগঞ্জ রোড থেকে নিজের স্বার্থ সিদ্ধির জন্য পুনরায় সলঙ্গা নিয়ে আসে এবং চক্রটি কুতুবের এলাকার সহজ সড়ল ও নিরিহ জমির মালিকদের সাথে প্রতারণা পূর্বক কতিপয় ব্যক্তিদের লোভে ফেলে পূনরায় মৎস্য আড়ৎটি নিজের কব্জায় নিয়ে এলাকার ব্যাক্তি মালিকানাধীন প্রায় ১০ বিঘা জমি জোরপূর্বক ভাবে দখল করে নেন। প্রকৃত মালিকগনের সাথে সমন্বয় না করেই সংঘবদ্ধ চক্রটি পজিশন কাটা সরবারহের নামে কাটা প্রতি ২ থেকে ৩ লক্ষ্য টাকা করে সাধারণ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে প্রায় কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নেন। এতে আমরা প্রকৃত মালিকগন সুবিধা বঞ্চিত সহ সরকারও লাখ লাখ টাকা রাজস্ব হারাচ্ছেন। অপরদিকে পরিকল্পনা বিহীন বরফ মিল করায় লবনাক্ত পানি প্রবাহিত হয়ে ফসল ও নদীর মাছের ব্যাপক ক্ষতি সাধন হচ্ছে। এছারাও জমির মালিকদের না জানিয়েই জোরপূর্বক ভাবে আড়ৎএর ভিতরে থাকা বৃক্ষ নিধন করেছে।
আমারা দূস্কৃতিকারী আব্দুল হাই সহ সংঘবদ্ধ চক্রটির কবল থেকে আমাদের জমিগুলো উদ্ধারসহ অবৈধভাবে গড়ে ওঠা মৎস আড়ৎটি বন্ধে প্রসাশনের উর্ধতন কতৃপক্ষের নিকট জোর দাবি জানাই।
সংবাদ সম্মেলন শেষে আশপাশের প্রায় ৩ শতাধিক ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ মানববন্ধনেও অংশ নেয়।

রায়গন্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদ হাসান খান জানান, জমির প্রকৃত মালিকগন যদি অভিযোগ দেন অবশ্যই দখল উদ্ধার করা হবে এছাড়া
হাটপেরিফেরীর জায়গা ও ইজারা ছাড়া মৎস্য আড়ৎ চলতে পারেনা, এটা অবৈধভাবে চলছে। হাটপেরিফেরির জায়গা দেওয়া না হলে বন্ধ করে দেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

সলঙ্গায় অবৈধ ভাবে মৎস্য আড়ৎ বন্ধ ও দখলকৃত জায়গা উদ্ধারে মানববন্ধন

আপডেট সময় : ০৫:২৫:৫৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪

লুৎফর রহমান লিটন,সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার সলঙ্গায় কুতুবের চড়ে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা মৎস আড়ৎ বন্ধে ও জোরপূর্বক ভাবে দখলকৃত জায়গা উদ্ধারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন করেছে জায়গার প্রকৃত মালিকগন।

২৩ শে এপ্রিল মঙ্গলবার বেলা ১০ টার দিকে কুতুবেরচর মৎস্য আড়ৎ এর সামনে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে প্রায় ৩ শতাধিক ক্ষতিগ্রস্ত মানুষসহ জমির মালিকগন।

সংবাদ সম্মেলনে প্রায় ১৫ জন জমির মালিক জানায়, মৎস্য আড়ৎ কমিটির সভাপতি আব্দুল হাই খান বিভিন্ন সময় মৎস্য আড়ৎটিকে নিজের সুবিধা আদায়ের জন্য বিভিন্ন জায়গায় স্থানান্তর করে। একসময়ের ঐতিহ্য বাহী সলঙ্গা মৎস্য আড়ৎটি হাটিকুমরুলে নিয়ে যায় আব্দুল হাই আবার সেই আব্দুল হাই ই সিরাজগঞ্জ রোড থেকে নিজের স্বার্থ সিদ্ধির জন্য পুনরায় সলঙ্গা নিয়ে আসে এবং চক্রটি কুতুবের এলাকার সহজ সড়ল ও নিরিহ জমির মালিকদের সাথে প্রতারণা পূর্বক কতিপয় ব্যক্তিদের লোভে ফেলে পূনরায় মৎস্য আড়ৎটি নিজের কব্জায় নিয়ে এলাকার ব্যাক্তি মালিকানাধীন প্রায় ১০ বিঘা জমি জোরপূর্বক ভাবে দখল করে নেন। প্রকৃত মালিকগনের সাথে সমন্বয় না করেই সংঘবদ্ধ চক্রটি পজিশন কাটা সরবারহের নামে কাটা প্রতি ২ থেকে ৩ লক্ষ্য টাকা করে সাধারণ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে প্রায় কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নেন। এতে আমরা প্রকৃত মালিকগন সুবিধা বঞ্চিত সহ সরকারও লাখ লাখ টাকা রাজস্ব হারাচ্ছেন। অপরদিকে পরিকল্পনা বিহীন বরফ মিল করায় লবনাক্ত পানি প্রবাহিত হয়ে ফসল ও নদীর মাছের ব্যাপক ক্ষতি সাধন হচ্ছে। এছারাও জমির মালিকদের না জানিয়েই জোরপূর্বক ভাবে আড়ৎএর ভিতরে থাকা বৃক্ষ নিধন করেছে।
আমারা দূস্কৃতিকারী আব্দুল হাই সহ সংঘবদ্ধ চক্রটির কবল থেকে আমাদের জমিগুলো উদ্ধারসহ অবৈধভাবে গড়ে ওঠা মৎস আড়ৎটি বন্ধে প্রসাশনের উর্ধতন কতৃপক্ষের নিকট জোর দাবি জানাই।
সংবাদ সম্মেলন শেষে আশপাশের প্রায় ৩ শতাধিক ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ মানববন্ধনেও অংশ নেয়।

রায়গন্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদ হাসান খান জানান, জমির প্রকৃত মালিকগন যদি অভিযোগ দেন অবশ্যই দখল উদ্ধার করা হবে এছাড়া
হাটপেরিফেরীর জায়গা ও ইজারা ছাড়া মৎস্য আড়ৎ চলতে পারেনা, এটা অবৈধভাবে চলছে। হাটপেরিফেরির জায়গা দেওয়া না হলে বন্ধ করে দেওয়া হবে।

শেয়ার করুন