ঢাকা ১১:১১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবিসি ন্যাশনাল নিউজ২৪ ইপেপার

ব্রেকিং নিউজঃ
ভেড়ামারায় ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স এসোসিয়েশন আয়োজিত ঈদ পুনর্মিলনী ঠাকুরগাঁওয় পৌরসভার সড়কের বেহাল দশা, অল্প বৃষ্টিতে তলিয়ে যায় পুরো এলাকা বগুড়ার জোড়া খুনের প্রধান আসামী গ্রেফতার বালিয়াডাঙ্গীতে এইচএসসি ২০০২ ব্যাচের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত দিনাজপুরে শ্যামলী পরিবহনের ধাঁক্কায় এ্যাম্বুলেন্স চালকের মর্মান্তিক মৃত্যু রংপুরে তিস্তার পানি বিপৎসীমার ওপরে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত ডোমারে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালিত হলো শতবর্ষী অনুষ্ঠান লালমনিরহাটে বজ্রপাতে ৫ টি গবাদিপশু পুড়ে যায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটি (বিএমএসএস) নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি এস এম জহিরুল ইসলাম বিদ্যুত ও সাধারণ সম্পাদক মো: জসিম উদ্দিন জসিম ডোমারে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার নামাজ অনুষ্ঠিত

শীত কালিন সবজি ও ডিম মুরগীর দাম সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:০৪:১৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২২ ৭১ বার পড়া হয়েছে

কামরুল ইসলাম। চট্টগ্রাম

নগরীর কাঁচাবাজারগুলোতে আগাম শীতকালীন সবজির সরবরাহ বাড়লেও কমেনি দাম। এখনো চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে শিম, ফুলকপি, বাঁধাকপি এবং মুলার মতো সবজি। তবে স্থিতিশীল রয়েছে গ্রীষ্মকালীন সবজির দাম। ব্যবসায়ীরা বলছেন, শীতকালীন সবজির চাহিদার তুলনায় সরবরাহ ওই অর্থে খুব বেশি বাড়েনি। ব্যবসায়ীদের দাবি নাকচ করে ভোক্তারা বলছেন, শীতকালীন প্রায় সবজির কেজি ১০০ টাকার ওপরে। আমরা যতটুকু জানি দেশের উত্তরাঞ্চলে শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন হয়েছে। তারপরেও দাম কমছে না। নগরীর কাজীর দেউড়ি এবং ব্যাটারি গলি কাঁচাবাজারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রতি কেজি ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা, শিম ১১০ টাকা, বাঁধাকপি ৭০ টাকা এবং মুলা বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা দরে। এছাড়া গ্রীষ্মকালীন সবজির মধ্যে বেগুন ৬০ টাকা, লাউ ৪০ টাকা, শসা ৭০, চিচিঙ্গা ৬০, বরবটি ৭০ টাকা, পটল ৬০, পেঁপে ৩০ টাকা, চালকুমড়া ৫০, ঢেঁড়স ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া টমেটো ১২০ টাকা, কাঁকরোল ৭০ টাকা এবং কচুরলতি বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়।

সবজি বিক্রেতা রমজান আলী বলেন, বাজারে আসলে যেসব সবজি আসছে, সেগুলো আড়ত থেকে আমাদেরকে বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। যার ফলে খুচরায়ও দাম বেশি। এছাড়া শীতকালীন সবজি দাম বাড়ার কারণ হচ্ছে, সরবরাহ খুব বাড়েনি। সবজি ছাড়াও মুরগি এবং ডিমের দামও চাঙা এক প্রকার বলতে গেলে শীত কালিন সবজি ও ডিম মুরগীর দাম সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে । গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগি দাম কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে গিয়ে এখন বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকায়। এছাড়া দেশি মুরগির কেজিতে ২০ টাকা বেড়ে গিয়ে বিক্রি হচ্ছে ৫৫০ টাকায়। তবে স্থিতিশীল রয়েছে ডিমের। গত সপ্তাহের মতো এ সপ্তাহে ডিম বিক্রি হচ্ছে ১৪০ টাকায়। মুরগি বিক্রেতা আদম আলী বলেন, মুরগির সরবরাহ কম। তাই দাম বেশি।খামারীরা বলছেন, তাদের উৎপাদন খরচ বেড়ে গেছে। সে কারণে আমাদের বেশি দামে মুরগি সরবরাহ দিচ্ছেন। একই কারণে ডিমেরও দামও বাড়তি। ইলিয়াস আহমেদ নামের একজন ক্রেতা জানান, বাজারে এমন কোনো পণ্য নেই যে, দাম বাড়েনি। এতে আমাদের মতো মধ্যবিত্তশ্রেণীর ক্রেতাদের রীতিমতো নাভিশ্বাস উঠেছে। বাজারের ওপর সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে সরকার দেশের জনসাধারণের কথা চিন্তা না করে বিরুদ্ধি দল কে দমন করতে ব্যস্ত।

শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

শীত কালিন সবজি ও ডিম মুরগীর দাম সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে 

আপডেট সময় : ১২:০৪:১৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২২

কামরুল ইসলাম। চট্টগ্রাম

নগরীর কাঁচাবাজারগুলোতে আগাম শীতকালীন সবজির সরবরাহ বাড়লেও কমেনি দাম। এখনো চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে শিম, ফুলকপি, বাঁধাকপি এবং মুলার মতো সবজি। তবে স্থিতিশীল রয়েছে গ্রীষ্মকালীন সবজির দাম। ব্যবসায়ীরা বলছেন, শীতকালীন সবজির চাহিদার তুলনায় সরবরাহ ওই অর্থে খুব বেশি বাড়েনি। ব্যবসায়ীদের দাবি নাকচ করে ভোক্তারা বলছেন, শীতকালীন প্রায় সবজির কেজি ১০০ টাকার ওপরে। আমরা যতটুকু জানি দেশের উত্তরাঞ্চলে শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন হয়েছে। তারপরেও দাম কমছে না। নগরীর কাজীর দেউড়ি এবং ব্যাটারি গলি কাঁচাবাজারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রতি কেজি ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা, শিম ১১০ টাকা, বাঁধাকপি ৭০ টাকা এবং মুলা বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা দরে। এছাড়া গ্রীষ্মকালীন সবজির মধ্যে বেগুন ৬০ টাকা, লাউ ৪০ টাকা, শসা ৭০, চিচিঙ্গা ৬০, বরবটি ৭০ টাকা, পটল ৬০, পেঁপে ৩০ টাকা, চালকুমড়া ৫০, ঢেঁড়স ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া টমেটো ১২০ টাকা, কাঁকরোল ৭০ টাকা এবং কচুরলতি বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়।

সবজি বিক্রেতা রমজান আলী বলেন, বাজারে আসলে যেসব সবজি আসছে, সেগুলো আড়ত থেকে আমাদেরকে বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। যার ফলে খুচরায়ও দাম বেশি। এছাড়া শীতকালীন সবজি দাম বাড়ার কারণ হচ্ছে, সরবরাহ খুব বাড়েনি। সবজি ছাড়াও মুরগি এবং ডিমের দামও চাঙা এক প্রকার বলতে গেলে শীত কালিন সবজি ও ডিম মুরগীর দাম সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে । গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগি দাম কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে গিয়ে এখন বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকায়। এছাড়া দেশি মুরগির কেজিতে ২০ টাকা বেড়ে গিয়ে বিক্রি হচ্ছে ৫৫০ টাকায়। তবে স্থিতিশীল রয়েছে ডিমের। গত সপ্তাহের মতো এ সপ্তাহে ডিম বিক্রি হচ্ছে ১৪০ টাকায়। মুরগি বিক্রেতা আদম আলী বলেন, মুরগির সরবরাহ কম। তাই দাম বেশি।খামারীরা বলছেন, তাদের উৎপাদন খরচ বেড়ে গেছে। সে কারণে আমাদের বেশি দামে মুরগি সরবরাহ দিচ্ছেন। একই কারণে ডিমেরও দামও বাড়তি। ইলিয়াস আহমেদ নামের একজন ক্রেতা জানান, বাজারে এমন কোনো পণ্য নেই যে, দাম বাড়েনি। এতে আমাদের মতো মধ্যবিত্তশ্রেণীর ক্রেতাদের রীতিমতো নাভিশ্বাস উঠেছে। বাজারের ওপর সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে সরকার দেশের জনসাধারণের কথা চিন্তা না করে বিরুদ্ধি দল কে দমন করতে ব্যস্ত।

শেয়ার করুন