ঢাকা ০৮:৫৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবিসি ন্যাশনাল নিউজ২৪ ইপেপার

ব্রেকিং নিউজঃ

যশোর জেলা পরিষদের পুনরায় চেয়ারম্যান পিকুল এবং মণিরামপুরে সদস্য নির্বাচিত হলেন গৌতম 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:২৯:৫২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর ২০২২ ৪৪ বার পড়া হয়েছে

নূরুল হক, মণিরামপুর প্রতিনিধি:

দেশের ৫৭টি জেলা পরিষদের নির্বাচনের অংশ হিসেবে যশোর জেলা পরিষদ নির্বাচনে মণিরামপুর কেন্দ্রে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর ব্যাপক উপস্থিতি ও কঠোর অবস্থানের মধ্য দিয়ে কোন অপ্রীতিকর ও সহিংস ঘটনা ছাড়াই শন্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। ৭নং-(মণিরামপুর) ওয়ার্ড-এর ভোট কেন্দ্র মণিরামপুর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সোমবার সকাল ৯টায় শুরু হয় ভোটগ্রহণ এবং তা বিরতিহীনভাবে দুপুর ২টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোট মেশিন (ইভিএম)-এ ভোট গ্রহণের মাধ্যমে শেষ হয়।

যশোর জেলা পরিষদের ৭নং-(মণিরামপুর) ওয়ার্ডে ১টি পৌরসভা, ১৭টি ইউনিয়ন ও উপজেলা পরিষদের জনপ্রতিনিধিরা এ নির্বাচনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। সকাল থেকেই ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ভোটাররা কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে লাইনে দাড়িয়ে শান্তিপূর্ণভাবে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। নির্বাচন চলাকালে এখানে বি-শৃঙ্খলার লেশমাত্রও ছিল না। তবে ভোটারের চাইতেও প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থক ও উৎসুক জনতার উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত।

এ ওয়ার্ডে মোট ২৩৭ জন ভোটারের মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন ২৩৬ জন। সদস্য পদে ২ জন প্রতিদ্বন্ধিতাকারীর মধ্যে হাতী প্রতীক নিয়ে গৌতম চক্রবর্তী ১৪৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন এবং তার একমাত্র প্রতিদ্বন্ধি শহিদুল ইসলাম মিলন টিউওয়েল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৮৫ ভোট এবং ৩টি ভোট বাতিল হয়েছে।

অপরদিকে সংরক্ষিত-২নং (মণিরামপুর ও কেশবপুর) ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্ধিতা করেন ৩ জন। মণিরামপুর উপজেলা থেকে তাসরিন সুলতানা শোভা ও রুকসানা ইয়াসমিন পান্না এবং কেশবপুর উপজেলা থেকে প্রতিদ্বন্ধিতা করেন নাদিরা বেগম। এতে তাসরিন সুলতানা শোভা ফুটবল প্রতীক নিয়ে মণিরামপুর কেন্দ্রে ১৫৪ এবং কেশবপুর কেন্দ্রে ৮৫ ভোটসহ মোট ২৩৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি রুকসানা ইয়াসমিন পান্না দোয়াত-কলম প্রতীক নিয়ে মণিরামপুর কেন্দ্রে ৭৯ এবং কেশবপুর কেন্দ্রে ২৮ ভোটসহ মোট পেয়েছেন ১০৭ ভোট। অপর প্রার্থী নাদিরা বেগম মাইক প্রতীক নিয়ে মণিরামপুর কেন্দ্রে ১ এবং কেশবপুর কেন্দ্রে ৪৪ ভোটসহ মোট পেয়েছেন ৪৫ ভোট।

এদিকে যশোর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত সাইফুজ্জামান পিকুল একমাত্র প্রতিদ্বন্ধি বিএলডিপি’র মারুফ হোসেন কাজলকে বড় ব্যবধানে পরাজিত করে পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

যশোর জেলা পরিষদের পুনরায় চেয়ারম্যান পিকুল এবং মণিরামপুরে সদস্য নির্বাচিত হলেন গৌতম 

আপডেট সময় : ১২:২৯:৫২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর ২০২২

নূরুল হক, মণিরামপুর প্রতিনিধি:

দেশের ৫৭টি জেলা পরিষদের নির্বাচনের অংশ হিসেবে যশোর জেলা পরিষদ নির্বাচনে মণিরামপুর কেন্দ্রে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর ব্যাপক উপস্থিতি ও কঠোর অবস্থানের মধ্য দিয়ে কোন অপ্রীতিকর ও সহিংস ঘটনা ছাড়াই শন্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। ৭নং-(মণিরামপুর) ওয়ার্ড-এর ভোট কেন্দ্র মণিরামপুর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সোমবার সকাল ৯টায় শুরু হয় ভোটগ্রহণ এবং তা বিরতিহীনভাবে দুপুর ২টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোট মেশিন (ইভিএম)-এ ভোট গ্রহণের মাধ্যমে শেষ হয়।

যশোর জেলা পরিষদের ৭নং-(মণিরামপুর) ওয়ার্ডে ১টি পৌরসভা, ১৭টি ইউনিয়ন ও উপজেলা পরিষদের জনপ্রতিনিধিরা এ নির্বাচনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। সকাল থেকেই ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ভোটাররা কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে লাইনে দাড়িয়ে শান্তিপূর্ণভাবে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। নির্বাচন চলাকালে এখানে বি-শৃঙ্খলার লেশমাত্রও ছিল না। তবে ভোটারের চাইতেও প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থক ও উৎসুক জনতার উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত।

এ ওয়ার্ডে মোট ২৩৭ জন ভোটারের মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন ২৩৬ জন। সদস্য পদে ২ জন প্রতিদ্বন্ধিতাকারীর মধ্যে হাতী প্রতীক নিয়ে গৌতম চক্রবর্তী ১৪৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন এবং তার একমাত্র প্রতিদ্বন্ধি শহিদুল ইসলাম মিলন টিউওয়েল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৮৫ ভোট এবং ৩টি ভোট বাতিল হয়েছে।

অপরদিকে সংরক্ষিত-২নং (মণিরামপুর ও কেশবপুর) ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্ধিতা করেন ৩ জন। মণিরামপুর উপজেলা থেকে তাসরিন সুলতানা শোভা ও রুকসানা ইয়াসমিন পান্না এবং কেশবপুর উপজেলা থেকে প্রতিদ্বন্ধিতা করেন নাদিরা বেগম। এতে তাসরিন সুলতানা শোভা ফুটবল প্রতীক নিয়ে মণিরামপুর কেন্দ্রে ১৫৪ এবং কেশবপুর কেন্দ্রে ৮৫ ভোটসহ মোট ২৩৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি রুকসানা ইয়াসমিন পান্না দোয়াত-কলম প্রতীক নিয়ে মণিরামপুর কেন্দ্রে ৭৯ এবং কেশবপুর কেন্দ্রে ২৮ ভোটসহ মোট পেয়েছেন ১০৭ ভোট। অপর প্রার্থী নাদিরা বেগম মাইক প্রতীক নিয়ে মণিরামপুর কেন্দ্রে ১ এবং কেশবপুর কেন্দ্রে ৪৪ ভোটসহ মোট পেয়েছেন ৪৫ ভোট।

এদিকে যশোর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত সাইফুজ্জামান পিকুল একমাত্র প্রতিদ্বন্ধি বিএলডিপি’র মারুফ হোসেন কাজলকে বড় ব্যবধানে পরাজিত করে পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

শেয়ার করুন