ঢাকা ১০:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবিসি ন্যাশনাল নিউজ২৪ ইপেপার

ব্রেকিং নিউজঃ

বিএনপির কর্মসূচি গত ১৪ বছরের নানা নামের আন্দোলন ছাড়া কিছু নয় : তথ্যমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৬:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২৩ ১২৩ বার পড়া হয়েছে

এবিসি নিউজ ডেস্কঃ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বিএনপির সামনের কর্মসূচিও গত ১৪ বছর ধরে তারা যে নানা ধরণের আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছে তারই ধারাবাহিকতা ছাড়া আর কিছু হবে না।’

আগামী ২৯ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর রাজশাহী সফর প্রস্তুতি উপলক্ষে স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় ও মাঠ পরিদর্শনের জন্য শুক্রবার ১৩ জানুয়ারি সকালে রাজশাহীতে পৌঁছান আওয়ামী লীগের রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। সেখানে সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন তিনি।

আগামী ১৬ জানুয়ারি বিএনপির দেশব্যাপী বিক্ষোভ নিয়ে প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘কয়েকদিন আগে বিএনপি যে অবস্থান কর্মসূচি পালন করল বা আগামী ১৬ তারিখে যে মিছিল, সেগুলো একটা ডিম পাড়ার আগে হাঁস যেমন অনেক হাঁকডাক দেয়, সেটি ছাড়া আর কিছু না।’

বিএনপির আন্দোলন নিয়ে ড. হাছান মাহমুদ বলেন ‘আমরা জনগণের রায় নিয়ে সরকার গঠনের পর থেকেই বিএনপি কঠোর, কঠোরতর এবং বিভিন্ন সময় নানা ধরণের নাম দিয়ে আন্দোলন করেছে, নানা ঘোষণা দিয়েছে। এবং একবার আন্দোলন করার পর বলে, আবার শীতের পরে আন্দোলন হবে, গ্রীষ্মের পরে, বর্ষার পরে, বার্ষিক পরীক্ষার পরে হবে এবং আরো নানা টাইম তারা দিয়েছে। তাদের সামনের কর্মসূচিও গত ১৪ বছরের ধারাবাহিকতা ছাড়া আর কিছু হবে না।’

আওয়ামী লীগের এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘আমরা জনগণকে সাথে নিয়ে রাজনীতি করি। আমাদের শক্তি জনগণ। এবং সাম্প্রতিক সময়েও আপনারা দেখেছেন সমগ্র বাংলাদেশে যে জনসভাগুলো আমরা করেছি, সেখানে লক্ষ লক্ষ লোকের সমাবেশ। অর্থাৎ জনগণ যে আমাদের সাথে আছে, সেটি সাম্প্রতিক সময়েও বিভিন্ন সমাবেশে প্রতীয়মান হয়েছে।’

‘উন্নত দেশের তুলনায় বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি কম’

বিদ্যুতের মূল্যের কয়েক দফা বৃদ্ধি নিয়ে প্রশ্নের জবাবে সম্প্রচার মন্ত্রী বলেন, ‘সারা বিশ্বে জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। আমাদের বিদ্যুৎখাত এখনো জীবাশ্ম জ্বালানি নির্ভর। কন্টিনেন্টাল ইউরোপ এবং যুক্তরাজ্যে জ্বালানি মূল্য বৃদ্ধির কারণে বিদ্যুতের রেশনিং করা হচ্ছে, দাম বাড়ানো হচ্ছে। আমাদের দেশে কিন্তু সেইভাবে দাম বাড়ানো হয়নি।’

ড. হাছান মাহমুদ জানান, ‘বিদ্যুৎখাতে আমাদের সরকার হাজার হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিচ্ছে। এবং জনগণের যেন অসুবিধা না হয়, তাদের যেন সুলভ মূল্যে বিদ্যুৎ দেওয়া যায়, সে জন্যই এই ভর্তুকি। সেই ভর্তুকি কিছুটা কমানোর জন্য বিদ্যুতের মূল্য সামান্য বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে। সেটিও উন্নত দেশগুলোর তুলনায় অনেক কম।’

‘২৯ জানুয়ারি রাজশাহী হবে সমাবেশের শহর’

আগামী ২৯ জানুয়ারি রাজশাহীতে প্রধানমন্ত্রীর জনসভা আয়োজন নিয়ে প্রশ্নে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘২৯ তারিখে যে জনসভা হতে যাচ্ছে, সে দিন রাজশাহী শহর লোকে লোকারণ্য হয়ে যাবে। সমাবেশ মাঠে হবে, কিন্তু পুরো শহরই সে দিন সমাবেশে পরিণত হবে। লক্ষ লক্ষ লোক হবে।’

শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বিএনপির কর্মসূচি গত ১৪ বছরের নানা নামের আন্দোলন ছাড়া কিছু নয় : তথ্যমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৫:৪৬:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২৩

এবিসি নিউজ ডেস্কঃ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বিএনপির সামনের কর্মসূচিও গত ১৪ বছর ধরে তারা যে নানা ধরণের আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছে তারই ধারাবাহিকতা ছাড়া আর কিছু হবে না।’

আগামী ২৯ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর রাজশাহী সফর প্রস্তুতি উপলক্ষে স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় ও মাঠ পরিদর্শনের জন্য শুক্রবার ১৩ জানুয়ারি সকালে রাজশাহীতে পৌঁছান আওয়ামী লীগের রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। সেখানে সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন তিনি।

আগামী ১৬ জানুয়ারি বিএনপির দেশব্যাপী বিক্ষোভ নিয়ে প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘কয়েকদিন আগে বিএনপি যে অবস্থান কর্মসূচি পালন করল বা আগামী ১৬ তারিখে যে মিছিল, সেগুলো একটা ডিম পাড়ার আগে হাঁস যেমন অনেক হাঁকডাক দেয়, সেটি ছাড়া আর কিছু না।’

বিএনপির আন্দোলন নিয়ে ড. হাছান মাহমুদ বলেন ‘আমরা জনগণের রায় নিয়ে সরকার গঠনের পর থেকেই বিএনপি কঠোর, কঠোরতর এবং বিভিন্ন সময় নানা ধরণের নাম দিয়ে আন্দোলন করেছে, নানা ঘোষণা দিয়েছে। এবং একবার আন্দোলন করার পর বলে, আবার শীতের পরে আন্দোলন হবে, গ্রীষ্মের পরে, বর্ষার পরে, বার্ষিক পরীক্ষার পরে হবে এবং আরো নানা টাইম তারা দিয়েছে। তাদের সামনের কর্মসূচিও গত ১৪ বছরের ধারাবাহিকতা ছাড়া আর কিছু হবে না।’

আওয়ামী লীগের এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘আমরা জনগণকে সাথে নিয়ে রাজনীতি করি। আমাদের শক্তি জনগণ। এবং সাম্প্রতিক সময়েও আপনারা দেখেছেন সমগ্র বাংলাদেশে যে জনসভাগুলো আমরা করেছি, সেখানে লক্ষ লক্ষ লোকের সমাবেশ। অর্থাৎ জনগণ যে আমাদের সাথে আছে, সেটি সাম্প্রতিক সময়েও বিভিন্ন সমাবেশে প্রতীয়মান হয়েছে।’

‘উন্নত দেশের তুলনায় বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি কম’

বিদ্যুতের মূল্যের কয়েক দফা বৃদ্ধি নিয়ে প্রশ্নের জবাবে সম্প্রচার মন্ত্রী বলেন, ‘সারা বিশ্বে জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। আমাদের বিদ্যুৎখাত এখনো জীবাশ্ম জ্বালানি নির্ভর। কন্টিনেন্টাল ইউরোপ এবং যুক্তরাজ্যে জ্বালানি মূল্য বৃদ্ধির কারণে বিদ্যুতের রেশনিং করা হচ্ছে, দাম বাড়ানো হচ্ছে। আমাদের দেশে কিন্তু সেইভাবে দাম বাড়ানো হয়নি।’

ড. হাছান মাহমুদ জানান, ‘বিদ্যুৎখাতে আমাদের সরকার হাজার হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিচ্ছে। এবং জনগণের যেন অসুবিধা না হয়, তাদের যেন সুলভ মূল্যে বিদ্যুৎ দেওয়া যায়, সে জন্যই এই ভর্তুকি। সেই ভর্তুকি কিছুটা কমানোর জন্য বিদ্যুতের মূল্য সামান্য বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে। সেটিও উন্নত দেশগুলোর তুলনায় অনেক কম।’

‘২৯ জানুয়ারি রাজশাহী হবে সমাবেশের শহর’

আগামী ২৯ জানুয়ারি রাজশাহীতে প্রধানমন্ত্রীর জনসভা আয়োজন নিয়ে প্রশ্নে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘২৯ তারিখে যে জনসভা হতে যাচ্ছে, সে দিন রাজশাহী শহর লোকে লোকারণ্য হয়ে যাবে। সমাবেশ মাঠে হবে, কিন্তু পুরো শহরই সে দিন সমাবেশে পরিণত হবে। লক্ষ লক্ষ লোক হবে।’

শেয়ার করুন