ঢাকা ১০:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবিসি ন্যাশনাল নিউজ২৪ ইপেপার

ব্রেকিং নিউজঃ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাফারি পার্ক থেকে চির বিদায় নিলেন সৈকত বাহাদুর

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৪৬:২৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২ ৪১ বার পড়া হয়েছে

কামরুল ইসলাম চট্টগ্রাম

কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা নামক এলাকায় অবস্থিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামকরণে নির্মিত বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে একটি পুরুষ হাতির মৃত্যু হয়েছে বলে জানাযায় । এই হাতিটার বয়স ৩২ বছর এই হাতিটার নাম রাখা হয়েছিল সৈকত বাহাদুর। গতকাল সোমবার বিকেল চারটার দিকে খাবার খাওয়ার সময় পার্কের হাতির গোদা নামক স্থানে তার মৃত্যু হয়।

 

পার্ক কর্তৃপক্ষ জানায়, বিকেলে চারটার দিকে পার্কের হাতির গোদায় খাবার (কলাগাছ) গ্রহণরত অবস্থায় হঠাৎ মাটিতে লুটিয়ে পড়লে উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা সমর রঞ্জন বড়ুয়াকে পার্কে আনা হয়। হাতিটির শরীর পরীক্ষা–নিরীক্ষা করে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয় সৈকত বাহাদুর নামক পার্কের এই হাতিটি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে ।

 

উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা সমর রঞ্জন বড়ুয়া গণমাধ্যম কে বলেন, মানুষের মতো প্রাণীরাও হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যেতে পারে। সাফারি পার্কের হাতি সৈকত বাহাদুরের বেলাতেও এমন ঘটনা ঘটলো। তবে অবস্থাদৃষ্টে মনে হয়েছে আগে থেকেই হাতিটির হার্টে একটু সমস্যা (কার্ডিয়াক এরেষ্ট) ছিল। যার কারণে হাতিটির হঠাৎই মৃত্যু হয়েছে। অবশ্য শরীরের অন্য কোথাও কোনো ধরনের আঘাতের দাগ পরিলক্ষিত হয়নি।

 

তিনি আরও বলেন, খাদ্য গ্রহণরত অবস্থায় হাতিটি মারা যাওয়ার খবর পেয়ে পার্কে গিয়ে ময়নাতদন্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়। এ সময় হাতিটির নানা অঙ্গ–প্রত্যঙ্গ সংগ্রহ করা যায়। এসব অঙ্গ–প্রত্যঙ্গ ঢাকায় ল্যাবে পাঠানো হবে।

 

সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক মো. মাজহারুল ইসলাম গনমাধ্যমকে বলেন, সোমবার বিকেল চারটার দিকে পার্কের হাতির গোদায় প্রতিদিনের মতোই পুরুষ হাতি সৈকত (মাখনা) বাহাদুরকে তিনটি কলাগাছ খাওয়ানো হয়। হাতিটির মাহুত মো. ফারুক হোসেন বিকেল চারটার দিকে মুঠোফোনে জানায় হাতিটি মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে।

 

পার্ক কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম জানান, বর্তমানে সাফারি পার্কে ছোট–বড় পাঁচটি হাতি রয়েছে। তন্মধ্যে টেকনাফের বনাঞ্চল থেকে উদ্ধার হওয়া হাতিশাবক যমুনা এবং বার্ধক্যের ভারে জর্জরিত হাতি রংমালাও রয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে পুরুষ হাতি সৈকত বাহাদুর হঠাৎ মারা যাওয়ার ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি রুজু করা হয়েছে। একইসাথে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে অবহিত করা হয়েছে। রাত ৯টার দিকে হাতিটিকে মাটিতে গর্ত করে পুঁতে ফেলার কাজ শেষ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাফারি পার্ক থেকে চির বিদায় নিলেন সৈকত বাহাদুর

আপডেট সময় : ১০:৪৬:২৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

কামরুল ইসলাম চট্টগ্রাম

কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা নামক এলাকায় অবস্থিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামকরণে নির্মিত বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে একটি পুরুষ হাতির মৃত্যু হয়েছে বলে জানাযায় । এই হাতিটার বয়স ৩২ বছর এই হাতিটার নাম রাখা হয়েছিল সৈকত বাহাদুর। গতকাল সোমবার বিকেল চারটার দিকে খাবার খাওয়ার সময় পার্কের হাতির গোদা নামক স্থানে তার মৃত্যু হয়।

 

পার্ক কর্তৃপক্ষ জানায়, বিকেলে চারটার দিকে পার্কের হাতির গোদায় খাবার (কলাগাছ) গ্রহণরত অবস্থায় হঠাৎ মাটিতে লুটিয়ে পড়লে উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা সমর রঞ্জন বড়ুয়াকে পার্কে আনা হয়। হাতিটির শরীর পরীক্ষা–নিরীক্ষা করে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয় সৈকত বাহাদুর নামক পার্কের এই হাতিটি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে ।

 

উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা সমর রঞ্জন বড়ুয়া গণমাধ্যম কে বলেন, মানুষের মতো প্রাণীরাও হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যেতে পারে। সাফারি পার্কের হাতি সৈকত বাহাদুরের বেলাতেও এমন ঘটনা ঘটলো। তবে অবস্থাদৃষ্টে মনে হয়েছে আগে থেকেই হাতিটির হার্টে একটু সমস্যা (কার্ডিয়াক এরেষ্ট) ছিল। যার কারণে হাতিটির হঠাৎই মৃত্যু হয়েছে। অবশ্য শরীরের অন্য কোথাও কোনো ধরনের আঘাতের দাগ পরিলক্ষিত হয়নি।

 

তিনি আরও বলেন, খাদ্য গ্রহণরত অবস্থায় হাতিটি মারা যাওয়ার খবর পেয়ে পার্কে গিয়ে ময়নাতদন্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়। এ সময় হাতিটির নানা অঙ্গ–প্রত্যঙ্গ সংগ্রহ করা যায়। এসব অঙ্গ–প্রত্যঙ্গ ঢাকায় ল্যাবে পাঠানো হবে।

 

সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক মো. মাজহারুল ইসলাম গনমাধ্যমকে বলেন, সোমবার বিকেল চারটার দিকে পার্কের হাতির গোদায় প্রতিদিনের মতোই পুরুষ হাতি সৈকত (মাখনা) বাহাদুরকে তিনটি কলাগাছ খাওয়ানো হয়। হাতিটির মাহুত মো. ফারুক হোসেন বিকেল চারটার দিকে মুঠোফোনে জানায় হাতিটি মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে।

 

পার্ক কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম জানান, বর্তমানে সাফারি পার্কে ছোট–বড় পাঁচটি হাতি রয়েছে। তন্মধ্যে টেকনাফের বনাঞ্চল থেকে উদ্ধার হওয়া হাতিশাবক যমুনা এবং বার্ধক্যের ভারে জর্জরিত হাতি রংমালাও রয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে পুরুষ হাতি সৈকত বাহাদুর হঠাৎ মারা যাওয়ার ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি রুজু করা হয়েছে। একইসাথে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে অবহিত করা হয়েছে। রাত ৯টার দিকে হাতিটিকে মাটিতে গর্ত করে পুঁতে ফেলার কাজ শেষ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন