ঢাকা ০৯:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবিসি ন্যাশনাল নিউজ২৪ ইপেপার

ব্রেকিং নিউজঃ

কর্ণফুলীর ভবিষ্যৎ নিয়ে নদীর ভবিষ্যত কি কমিশন চেয়ারম্যান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:০১:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৯ নভেম্বর ২০২২ ৫৬ বার পড়া হয়েছে

কামরুল ইসলাম চৌধুরী চট্টগ্রাম

এবার কর্ণফুলীর ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কার কথা জানালেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মনজুর আহমেদ চৌধুরী।তিনি বলেন এই কর্ণফুলীর ভবিষ্যত কি।

 

মঙ্গলবার নদীর বিভিন্ন অংশ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি এই শঙ্কার কথা জানান।

নদীর পতেঙ্গা, শাহ আমানত সেতু ও নতুন ফিশারি ঘাট এলাকা অংশ পরিদর্শন করেন ড. মনজুর আহমেদ। এ সময় নদী রক্ষা কমিশনের উপপরিচালক (গবেষণা ও নিরীক্ষণ) ড. আকতারুজ্জামান তালুকদার ও পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগরের পরিচালক হিল্লোল বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন।

চাক্তাইয়ের ভেড়া মার্কেটের বিপরীতে জাতীয় মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি প্রতিষ্ঠিত নতুন ফিশারি ঘাট এলাকায় গিয়ে হতবাক হন নদী কমিশনের চেয়ারম্যান। তিনি এ জায়গায় কীভাবে ফিশারি ঘাট গড়ে উঠল, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন এবং আড়তদার ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে তা জানার চেষ্টা করেন। এ সময় তিনি নিজের ল্যাপটপে ২০০০ সাল থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত বিভিন্ন বছরের গুগলচিত্র তুলে ধরে কখন থেকে এখানে নদী দখল হচ্ছে, তা তুলে ধরেন। চট্টগ্রামে এত সরকারি সংস্থা ও এখানকার বুদ্ধিজীবী সমাজ থাকার পরও নদী ভরাটের কাজটা কীভাবে করা হলো, তা নিয়েও বিস্ময় প্রকাশ করেন এবং এটা কোনোভাবে মেনে নেওয়া যায় না বলে মন্তব্য করেন।

শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

কর্ণফুলীর ভবিষ্যৎ নিয়ে নদীর ভবিষ্যত কি কমিশন চেয়ারম্যান

আপডেট সময় : ১০:০১:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৯ নভেম্বর ২০২২

কামরুল ইসলাম চৌধুরী চট্টগ্রাম

এবার কর্ণফুলীর ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কার কথা জানালেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মনজুর আহমেদ চৌধুরী।তিনি বলেন এই কর্ণফুলীর ভবিষ্যত কি।

 

মঙ্গলবার নদীর বিভিন্ন অংশ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি এই শঙ্কার কথা জানান।

নদীর পতেঙ্গা, শাহ আমানত সেতু ও নতুন ফিশারি ঘাট এলাকা অংশ পরিদর্শন করেন ড. মনজুর আহমেদ। এ সময় নদী রক্ষা কমিশনের উপপরিচালক (গবেষণা ও নিরীক্ষণ) ড. আকতারুজ্জামান তালুকদার ও পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগরের পরিচালক হিল্লোল বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন।

চাক্তাইয়ের ভেড়া মার্কেটের বিপরীতে জাতীয় মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি প্রতিষ্ঠিত নতুন ফিশারি ঘাট এলাকায় গিয়ে হতবাক হন নদী কমিশনের চেয়ারম্যান। তিনি এ জায়গায় কীভাবে ফিশারি ঘাট গড়ে উঠল, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন এবং আড়তদার ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে তা জানার চেষ্টা করেন। এ সময় তিনি নিজের ল্যাপটপে ২০০০ সাল থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত বিভিন্ন বছরের গুগলচিত্র তুলে ধরে কখন থেকে এখানে নদী দখল হচ্ছে, তা তুলে ধরেন। চট্টগ্রামে এত সরকারি সংস্থা ও এখানকার বুদ্ধিজীবী সমাজ থাকার পরও নদী ভরাটের কাজটা কীভাবে করা হলো, তা নিয়েও বিস্ময় প্রকাশ করেন এবং এটা কোনোভাবে মেনে নেওয়া যায় না বলে মন্তব্য করেন।

শেয়ার করুন