ঢাকা ০১:০৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবিসি ন্যাশনাল নিউজ২৪ ইপেপার

ব্রেকিং নিউজঃ
খোকসা উসাসের পক্ষে থেকে নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যানকে ফুলের শুভেচ্ছা। বগুড়ায় নারী চিকিৎসক মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ট্যালেট সেবনে আত্মহত্যা তিস্তা সেতুর মাঝখানে ফাটল আতঙ্কে পথযাত্রীরা। ঈমান রক্ষার দোয়া। হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী। ভারতের সঙ্গে সম্পর্ককে বিশেষ গুরুত্ব দেয় বাংলাদেশ: শেখ হাসিনা আমতলীতে বৌ-ভাতের অনুষ্ঠানে আসার পথে ব্রীজ ভেঙ্গে ৯জন নিহত ঢাকা-দিল্লি সম্পর্ক আরও গভীর করতে ৭টি নতুন সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের অভিযানে ৫ মাদক ব্যবসায়ি গ্রেফতার –মাদক উদ্ধার ! দিল্লী সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী ঠাকুরগাঁওয়ের স্ত্রীর মামলার আসামি পলাতক স্বামী জাহাঙ্গীর আলম গ্রেফতার ।

আদমদীঘিতে সু-চিকিৎসার অভাবে অজ্ঞাত যুবকের মৃত্যু!!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫৫:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ নভেম্বর ২০২২ ৪৭ বার পড়া হয়েছে

মিরু হাসান বাপ্পী, বগুড়া জেলা সংবাদদাতা

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা হাসপাতালের জরুরী বিভাগের গেটের সামনে প্রায় পৌনে এক ঘন্টা মৃত্যু যন্ত্রানায় ছটপট করলেও ডাক্তার কোন চিকিৎসা না করায় অজ্ঞাত(৩০) এক যুবকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে উন্নত চিকিৎসার জন্য অ্যাম্বুলেন্স যোগে বগুড়ায় নেয়ার পথে ওই যুবকের মৃত্যু হয়।

 

জানা যায়, সোমবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার সান্দিড়া রাস্তায় ৩০ বছর বয়সী অজ্ঞাত এক যুবক অসুস্থ অবস্থায় ছটপট করছিল। স্থানীয় লোকজন দেখতে পেয়ে অজ্ঞাত ওই যুবককে আদমদীঘি হাসপাতালে নিয়ে এসে জরুরী বিভাগের গেটের সামনে রেখে ডাক্তারকে বলে তারা চলে যায়। প্রায় পৌনে এক ঘন্টা ধরে জরুরী বিভাগের গেটের সামনে ওই যুবক মৃত্যু যন্ত্রনায় ছটপট করছিল। অমানবিক ঘটনাটি দেখে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা লোকজন থানা পুলিশকে খবর দেয়। থানার অফিসার ইনর্চাজ রেজাউল করিম রেজা খবরটি পাওয়ার পর এসআই নাজমুল হোসেনকে ঘটনাস্থলে পাঠায়। এসআই নাজমুল হোসেন বেলা পৌনে ১২টায় হাসপাতালে পৌছে জোড় চেষ্টা চালিয়ে অজ্ঞাত ওই যুবককে উন্নত চিকিৎসার জন্য অ্যাম্বুলেন্স যোগে বগুড়া শজেমিক হাসপাতালে পাঠায়। বগুড়ায় নেয়ার পথে ওই অজ্ঞাত যুবকের মৃত্যু হয়।

 

এ বিষয়ে এসআই নাজমুল হোসেন জানান, আমি হাসপাতালে গিয়ে দেখি অজ্ঞাত যুবকটি হাসপাতালের জরুরী বিভাগের সামনে মৃত্যু যন্ত্রনায় ছটপট করছিল। ডাক্তারের সাথে কথা বলে তড়িঘড়ি করে অ্যাম্বুলেন্স যোগে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়ায় পাঠালে পথিমধ্যে ওই অজ্ঞাত যুবকের মৃত্যু ঘটে। এ ঘটনায় আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাক্তার ফজলে রাব্বীর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, অজ্ঞাত ওই যুবক বিষপানে অসুস্থ ছিলেন। রোগীর অবস্থান সংকাপন্ন ছিল জন্য এখানে চিকিৎসার জন্য কালক্ষেপন না করে উন্নত চিকিৎসার জন্য আমি নিজেই উপস্থিত থেকে বগুড়া শজেমিক হাসপাতালে স্থানান্তর করি।

শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

আদমদীঘিতে সু-চিকিৎসার অভাবে অজ্ঞাত যুবকের মৃত্যু!!

আপডেট সময় : ১১:৫৫:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ নভেম্বর ২০২২

মিরু হাসান বাপ্পী, বগুড়া জেলা সংবাদদাতা

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা হাসপাতালের জরুরী বিভাগের গেটের সামনে প্রায় পৌনে এক ঘন্টা মৃত্যু যন্ত্রানায় ছটপট করলেও ডাক্তার কোন চিকিৎসা না করায় অজ্ঞাত(৩০) এক যুবকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে উন্নত চিকিৎসার জন্য অ্যাম্বুলেন্স যোগে বগুড়ায় নেয়ার পথে ওই যুবকের মৃত্যু হয়।

 

জানা যায়, সোমবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার সান্দিড়া রাস্তায় ৩০ বছর বয়সী অজ্ঞাত এক যুবক অসুস্থ অবস্থায় ছটপট করছিল। স্থানীয় লোকজন দেখতে পেয়ে অজ্ঞাত ওই যুবককে আদমদীঘি হাসপাতালে নিয়ে এসে জরুরী বিভাগের গেটের সামনে রেখে ডাক্তারকে বলে তারা চলে যায়। প্রায় পৌনে এক ঘন্টা ধরে জরুরী বিভাগের গেটের সামনে ওই যুবক মৃত্যু যন্ত্রনায় ছটপট করছিল। অমানবিক ঘটনাটি দেখে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা লোকজন থানা পুলিশকে খবর দেয়। থানার অফিসার ইনর্চাজ রেজাউল করিম রেজা খবরটি পাওয়ার পর এসআই নাজমুল হোসেনকে ঘটনাস্থলে পাঠায়। এসআই নাজমুল হোসেন বেলা পৌনে ১২টায় হাসপাতালে পৌছে জোড় চেষ্টা চালিয়ে অজ্ঞাত ওই যুবককে উন্নত চিকিৎসার জন্য অ্যাম্বুলেন্স যোগে বগুড়া শজেমিক হাসপাতালে পাঠায়। বগুড়ায় নেয়ার পথে ওই অজ্ঞাত যুবকের মৃত্যু হয়।

 

এ বিষয়ে এসআই নাজমুল হোসেন জানান, আমি হাসপাতালে গিয়ে দেখি অজ্ঞাত যুবকটি হাসপাতালের জরুরী বিভাগের সামনে মৃত্যু যন্ত্রনায় ছটপট করছিল। ডাক্তারের সাথে কথা বলে তড়িঘড়ি করে অ্যাম্বুলেন্স যোগে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়ায় পাঠালে পথিমধ্যে ওই অজ্ঞাত যুবকের মৃত্যু ঘটে। এ ঘটনায় আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাক্তার ফজলে রাব্বীর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, অজ্ঞাত ওই যুবক বিষপানে অসুস্থ ছিলেন। রোগীর অবস্থান সংকাপন্ন ছিল জন্য এখানে চিকিৎসার জন্য কালক্ষেপন না করে উন্নত চিকিৎসার জন্য আমি নিজেই উপস্থিত থেকে বগুড়া শজেমিক হাসপাতালে স্থানান্তর করি।

শেয়ার করুন